Do not look for a sanctuary in anyone except your self.

— Buddha

ক্লেশ

মুঠোফোন হাতে যখন সময়ের অবমাননা ব্যস্ত আমি
হঠাৎ চোখে পরে সেই মুহূর্তগুলো যা কোনো সময় হতো ছিলো অনেক দামি,
মুছে গিয়েছিল কোনো শক্ত কাঠের রাবারে,
পেন্সিলে নয়,সুরমায় চোখে সাজিয়ে রেখেছিলাম যাহারে।
আজ স্বপ্নেও যা ছিন্ন করে,আঘাত হানে দুয়ারে।
তীব্র রোদের আমেজে
সূর্যটা অনেক বিরক্তিকর লাগে
সাতার না জানা নাবিকের সমুদ্র কি ভালোলাগে??
তেমনি সৃতিচারণও আমার মন্দিরে প্রবেশ নিষিদ্ধ লিখে রাখে।
মুমূর্ষু হয়ে থাকা শরীরে,কাপুরুষের ছোঁয়া লাগে
ছিটকে সরিয়ে ফেলে,
যেন সীতা তার রাম হতে দূরে যায় সরে!
যেন মধুর বাঁশি সুর রাধাকেও ঘর বন্দি করে!
চাপা পড়ে যায়,চিৎকার থেমে যায়
শতকে শতকে তবুও মানুষ তাদেরই জয়গান গায়
কেউ জেনে প্রেমে পড়ে,কেউ জেনেই দূর সরে।
তাদের কাহিনী কি আর ইতিহাসের পাতা গায়ে তুলে??
যদি মরিতে না পারো তুমি ভালোবেসে,
যদি নাইবা পারো সাদা কোনো প্রাসাদ গড়তে,,
দিনে দিনে ভাঙা মন মূলহীন হয়ে পড়ে।
কেন???
হয়তো তারাই করেছিলো প্রেম,বেসেছিলো ভালো
আর তোমরা তো শুধু ভেসে গিয়েছিলে আবেগে।
হাস্যরসিকতার এই খেলা
অমূল্য কতো অনুভুতিকেই হার মানায়
কেউ ডায়েরির পাতায় সাজায়,
কেউ ময়ুরের বেশে রঙে বেরঙের মূর্তি বানায়।
এমন এক তিক্ত অনুভুতি আমার মনে
আমায় রক্তমোক্ষণ করে রাখে।
….
কলমেঃশাহনাজ রহমান প্রমি

What’s your Reaction?
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

Leave a Reply