Live as if you were to die tomorrow. Learn as if you were to live forever.

সাদা-কালো

হয়তো রঙিন নয়, নয় কোন রসদ এর আধার,
কোন রং যে আমায় আলোকিত করে না,
আমিও তাই হাপিত্যেশ করিনা।

যদি বলা হয়, যদি শর্তে বাধা হয়,
রং ই হবে চূড়ান্ত মাপকাঠি,
তাহলে সাদাকালো কি অদ্ভুত হবে?
নাকি সব রং কে হেলানো যাবে?

না আমি এখনো ভেবে দেখি নি,
ভেতরটাকে জ্বালাতন করিনি,
কারণ প্রতীক্ষার রং কিংবা আশা জাগানোর
ছবি তো বে রঙিন হয়।

ওপার থেকে আওয়াজ আসছিল,
বলছিল যে সাদাকালো টা জঘন্য,
কোন মায়া নাকি তাকে জড়ায না।
এটা নাকি পুরনো গল্পের রং।

তা আমি আবার একটু রাগী মানুষ,
বললাম, কেন সাদা তো শান্তির রং?
আর কালো তো খুবই সহ্য করে ,কথা বলে না
তাহলে কেন মাপা যাবে না?

এই যে আপনি খেয়াল করছেন না,
সাদা কাগজের মধ্যে কালো কালি
দিয়ে আমি আপনি লিখছি ইতিহাস,
তবে কি ইতিহাস মূল্য হারাবে?

আসলে হয়েছে কি, মানুষ এখন রং এর প্রতীক,
চোখের ভেলকিবাজিতে মাতোয়ারা,
সামনে যা দেখে তাতেই বোধ হয়,
রসিকেরা তো সাদাকালো কে পিষে মারে।

আগে-পিছে ও থাকা মুশকিল,
সমাজ নাকি আবার সচেতন?
তাইলে রঙের খেসারত দেয় কেন বারবার?
আমার কথাটা কি যুক্তিহীন?

আপনি আগে গিরগিটির মত রং পাল্টাতেন,
লোকে তালি দিত, বাহ মশাই
আর আমার সাদাকালো চিন্তাগুলো,
পাথরের আঘাত বলে ফেলে দিলে?

হ্যাঁ, এখন আমি কঠিন চিন্তা করি ,করি
আমার চোখ কান মেলে আমি বুঝি,
আমরা সুস্থ পরিবেশে নাই , অযাচিত ভয়,
আমাদের ঘাড়ে চেপে বসেছে।

ব্যাপারটা খোলাসা করা দরকার,
সমাজ সচেতনতার নামে যে,
কালসাপ পুষছে তা একদিন আমাদের ওই,
ছিঁড়ে খাবে ,মেনে নিও তখন।

ভয় পাও রুখে দাঁড়াও না তাই,
মোল্লার দৌড় মসজিদ পর্যন্ত,
একথা যে পাচ্ছে বড্ড সাঁই,
তুমিও রঙিন, চারপাশ রঙিন শেষ তোমার কর্তব্য।

চেতনাহীন কিংবা মূল্যহীন কোন রঙে নয়,
সবারই দায়বদ্ধতা আছে,
প্রতিটির নিজ নিজ স্থান আছে, অবহেলা তো,
শুধুমাত্র দৃষ্টির হেরফের।

আজ ওটা কে ভালো লাগছে তো,
কাল আরেকটা কে,
এভাবে মরীচিকার ভ্রান্তিতে জড়িয়ে আছে,
আসল টা কে ভুলে গিয়ে।

হ্যাঁ, সবাই কথা বলে, তবে বাঁচার মতো কিংবা
টিকে থাকার মত স্থান শুধু,
সাদাকালো ওয়ালারাই ,
দেখাতে চায় ,মিলিয়ে নিও।

তরতর করে যখন গণজাগরণের,
ডাক ভাসবে আকাশে বাতাসে,
সাদাকালোর জয় তখন মুখ্য
রংয়ের আচমকা পশলা কেউ ছুয়ে দেখবে না।

বেঁচে থাকতে চাইলে বাঁচার মত পরিবেশ চাই,
জঙ্গলে তো বেঁচে থাকা যায় কিন্তু আতঙ্ক নিয়ে,
আর আমাদের সমাজ সেটা তো
আরো ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে।

রূপের লাবণ্য ক্ষণিকের উত্তেজনা,
নতুন কিছু পেলে আগেরটা, ধুর ছাই,
নতুনত্ব মানুষকে প্রকৃত থেকে দূরে ফেলেছে,
আবেগ না চাইলেও আবেগ ই নিয়ন্ত্রণ করছে।

সীমারেখা এখনো আসেনি,
চাইলেই থামানো যাবে,
রঙের মেলায় সব রঙ এর স্থান চাই,
নইলে করবো সব ছাই।

রণতরীর যোদ্ধারা অপেক্ষায়,
সব রং কে মিলিয়ে দিতে,
পাই পাই করে অচেনা হিসাব কে,
চিনিয়ে দিতে।

একমুহূর্তেও থাকবে না আর,
চাই আজ সমতা কিংবা
মত প্রকাশের ও ভালো চিন্তা প্রকাশের
অতি আকাঙ্ক্ষিত অধিকার।

নিজ থেকে মিলিয়ে নিয়েছি অনেকবার,
হেরেছি সমাজের মুখপানে,
আর নয় ঘুমিয়ে থাকা সাদাকালোর অঙ্গীকার,
চলবে তীব্র প্রতিবাদের চিত্রকার।

বিলীন কোন মন প্রাঙ্গণে,
হারিয়েছি রঙ প্রতিবার,
চেয়েছি দুহাত বাড়িয়ে ফিরিয়ে দাও,
সাদা কালোর উজ্জ্বলতা আবার।

নেপথ্যে কথা আজ নিভৃত,
শুনশান রঙ আর চাইবে না,
পুলকিত আভার পরাজয়,
চাইবে যোগ্য মত স্থান।

সব বিভেদ দূর করে দাও,
মানসিকতা পাল্টে দাও,
সাদা-কালোর গান গাইবো না আর,
যদি দাও নিশ্চয়তার চুক্তিপত্র।

Writer: Sabbir Ahmed

What’s your Reaction?
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

Leave a Reply